ব্রেকিং নিউজ
মৌলভীবাজারে দুগ্ধ দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জিল্লুর রহমান এমপি কমলগঞ্জে ধলাই নদীর বাঁধ ভেঙ্গে এক লাখ লোক পানি বন্দি মৌলভীবাজারের পানিবন্দি মানুষের পাশে এমপি জিল্লুর রহমান রাজনগরে “সিসিমপুর মেলার উদ্বোধন মৌলভীবাজারে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন তাজ টেংরাবাজার টু শমসেরনগর সড়ক সংস্কারের ভিত্তিপ্রস্তর করলেন এমপি জিল্লুর রহমান রাজনগরে কৃষি উপকরণ বিতরণ করলেন এমপি জিল্লুর রহমান মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ৩ হাজার কৃষকের মধ্যে কৃষি উপকরণ বিতরন মৌলভীবাজারে আট হাজার নারী পুরুষ পেলেন এমপি জিল্লুর রহমানের ঈদ উপহার বেশি করে খাদ্য উৎপাদন করতে পারলে কারো কাছে মাথা নত করতে হবে না- কৃষিমন্ত্রী

ময়লার ভাগাড় অপসারণের দাবিতে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা

প্রথম পাতা » অনিয়ম-দুর্নীতি » ময়লার ভাগাড় অপসারণের দাবিতে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা
বুধবার ● ১৭ মে ২০২৩


ময়লার ভাগাড় অপসারণের দাবিতে ক্লাস বর্জনের ঘোষণামৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে ময়লার ভাগার অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত ক্লাশে না ফেরার ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময়ে কোন পরীক্ষায়ও অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে তারা।

মঙ্গলবার (১৬ মে) সকালে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে ক্লাশ বর্জনের এই ঘোষণা দেয় তারা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কলেজের শিক্ষার্থী উম্মে নাফিসা মাইমুনাহ, দীপ্ত পাল, রানা প্রমুখ।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, আজ আমরা আমাদের নৈতিক দাবি নিয়ে দাঁড়িয়েছি। আশা করি সবাই আমাদের দাবিগুলো বুঝতে পেরেছেন। আমাদের একটাই দাবী, দীর্ঘ একযুগেরও বেশী সময় ধরে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে যে ময়লার ভাগাড়টি রয়েছে, সে ময়লার ভাগাড়টি সরানোর দাবি। আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্টানের সামনের ময়লা ভাগাড়টি আজকালকের নয়, এটি অনেক বছর ধরে। আমাদের বড় ভাই-আপুরা এটা সরানোর জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন, কিন্তু এই ময়লার স্তুপ সরানোর কোন ফলাফল এখন পর্যন্ত আমরা পাইনি। এই ময়লার ভাগাড়ের জন্য আমাদের ক্লাস করতে কি পরিমাণ সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি, সেটা একমাত্র আমরাই বলতে পারি।’

শুধু তাই নয়, যখন বৃষ্টি হয় তখন বৃষ্টির পানি ময়লার ভাগাড় হয়ে কলেজে এসে ঢুকে, মাদ্রাসায় এসে ঢুকে, স্কুলে এসে ঢুকে তখন কি ধরনের অসুবিধের মধ্যে দিয়ে যে, যাতায়াত করতে হয় সেটা একমাত্র আমরাই জানি। তাছাড়া এই ময়লার স্তুপে প্রচুর কুকুরদের আনাগোনা। কুকুরগুলো নানা সময় শিক্ষার্থীদের আক্রমণ করেছে। কুকুরের আক্রমণের শিকার হয়েছে বহু শিক্ষার্থী। আমরা এই সমস্যা নিয়ে নানান সময় পৌর মেয়রের কাছে গিয়েছি, আবেদনও করেছি কিন্তু সুফল বা সমাধান পাইনি। তাই কর্তৃপক্ষের কাছে আবাদের দাবি থাকবে, আমাদের এই দাবি মেনে নিয়ে যেনো যত তারাতাড়ি সম্ভব এই ময়লার ভাগাড় সরানোর ব্যবস্থা করেন। তাছাড়া এই ময়লার ভাগাড় আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটা ক্ষতিকর সেটা আশাকরি সবারই জানার কথা। এই ভাগাড়ের ময়লা জ্বালানোর যে ধোঁয়া বের হয়, সেটা ক্যান্সারের ও কারণ।’

শিক্ষার্থীরা বলেন, যতদিন না এই ময়লার ভাগার অপসারণ হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। আমরা আজ থেকে কলেজের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করলাম। আজ থেকে কোন শিক্ষার্থী ক্লাশে অংশ নিবে না।

ময়লার ভাগাড় অপসারণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি একাত্বতা প্রকাশ করেন শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ দ্বীপচান কানু বলেন, শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজ এ উপজেলার একটি স্বনামধন্য বিদ্যাপীঠ। প্রায় আট হাজার শিক্ষার্থী এ কলেজে অধ্যায়নরত আছে।

তিনি বলেন, আলো এবং অন্ধকার যেমন পাশাপাশি চলতে পারে না তেমনি শিক্ষার সাথে এরকম নোংরা পরিবেশ চলতে পারে না, স্বাধীন দেশের সুন্দর নাগরিকদের সুশিক্ষায় আমার শিক্ষার্থীদের উন্নত করতে হলে একটি সুন্দর পরিবেশ দিতে হবে। তাই আমি সকলের কাছে জোর আবেদন জানাচ্ছি এ ময়লার ভাগাড়টি এখান থেকে সরিয়ে ফেলে একটি সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করে দেওয়ার জন্য।
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে ময়লার ভাগার অপসারণ না হওয়া পর্যন্ত ক্লাশে না ফেরার ঘোষণা দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময়ে কোন পরীক্ষায়ও অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিয়েছে তারা।

মঙ্গলবার (১৬ মে) সকালে শ্রীমঙ্গল সরকারি কলেজের শিক্ষার্থীদের আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে ক্লাশ বর্জনের এই ঘোষণা দেয় তারা। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন কলেজের শিক্ষার্থী উম্মে নাফিসা মাইমুনাহ, দীপ্ত পাল, রানা প্রমুখ।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, আজ আমরা আমাদের নৈতিক দাবি নিয়ে দাঁড়িয়েছি। আশা করি সবাই আমাদের দাবিগুলো বুঝতে পেরেছেন। আমাদের একটাই দাবী, দীর্ঘ একযুগেরও বেশী সময় ধরে আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সামনে যে ময়লার ভাগাড়টি রয়েছে, সে ময়লার ভাগাড়টি সরানোর দাবি। আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্টানের সামনের ময়লা ভাগাড়টি আজকালকের নয়, এটি অনেক বছর ধরে। আমাদের বড় ভাই-আপুরা এটা সরানোর জন্য অনেক চেষ্টা করেছেন, কিন্তু এই ময়লার স্তুপ সরানোর কোন ফলাফল এখন পর্যন্ত আমরা পাইনি। এই ময়লার ভাগাড়ের জন্য আমাদের ক্লাস করতে কি পরিমাণ সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছি, সেটা একমাত্র আমরাই বলতে পারি।’

শুধু তাই নয়, যখন বৃষ্টি হয় তখন বৃষ্টির পানি ময়লার ভাগাড় হয়ে কলেজে এসে ঢুকে, মাদ্রাসায় এসে ঢুকে, স্কুলে এসে ঢুকে তখন কি ধরনের অসুবিধের মধ্যে দিয়ে যে, যাতায়াত করতে হয় সেটা একমাত্র আমরাই জানি। তাছাড়া এই ময়লার স্তুপে প্রচুর কুকুরদের আনাগোনা। কুকুরগুলো নানা সময় শিক্ষার্থীদের আক্রমণ করেছে। কুকুরের আক্রমণের শিকার হয়েছে বহু শিক্ষার্থী। আমরা এই সমস্যা নিয়ে নানান সময় পৌর মেয়রের কাছে গিয়েছি, আবেদনও করেছি কিন্তু সুফল বা সমাধান পাইনি। তাই কর্তৃপক্ষের কাছে আবাদের দাবি থাকবে, আমাদের এই দাবি মেনে নিয়ে যেনো যত তারাতাড়ি সম্ভব এই ময়লার ভাগাড় সরানোর ব্যবস্থা করেন। তাছাড়া এই ময়লার ভাগাড় আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য কতটা ক্ষতিকর সেটা আশাকরি সবারই জানার কথা। এই ভাগাড়ের ময়লা জ্বালানোর যে ধোঁয়া বের হয়, সেটা ক্যান্সারের ও কারণ।’

শিক্ষার্থীরা বলেন, যতদিন না এই ময়লার ভাগার অপসারণ হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। আমরা আজ থেকে কলেজের সকল ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করলাম। আজ থেকে কোন শিক্ষার্থী ক্লাশে অংশ নিবে না।

ময়লার ভাগাড় অপসারণের দাবিতে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রতি একাত্বতা প্রকাশ করেন শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ দ্বীপচান কানু বলেন, শ্রীমঙ্গল সরকারী কলেজ এ উপজেলার একটি স্বনামধন্য বিদ্যাপীঠ। প্রায় আট হাজার শিক্ষার্থী এ কলেজে অধ্যায়নরত আছে।

তিনি বলেন, আলো এবং অন্ধকার যেমন পাশাপাশি চলতে পারে না তেমনি শিক্ষার সাথে এরকম নোংরা পরিবেশ চলতে পারে না, স্বাধীন দেশের সুন্দর নাগরিকদের সুশিক্ষায় আমার শিক্ষার্থীদের উন্নত করতে হলে একটি সুন্দর পরিবেশ দিতে হবে। তাই আমি সকলের কাছে জোর আবেদন জানাচ্ছি এ ময়লার ভাগাড়টি এখান থেকে সরিয়ে ফেলে একটি সুন্দর পরিবেশ সৃষ্টি করে দেওয়ার জন্য।

বাংলাদেশ সময়: ০:৪৫:০৬ ● ১৮৯ বার পঠিত




আর্কাইভ